Paranormal Exposed ( সুশান্ত সিং রাজপুত )

কথায় আছে আমজনতা লজিকের চেয়ে ম্যাজিকে বেশি বিশ্বাসী তাই হুজুগ প্রিয় জনগণ গুজবে বেশি আস্থা রাখেন।

তরুণ অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত এর মৃত্যু অবসাদের দরুন আত্মহত্যা নাকি প্রি প্ল্যান মার্ডার সেটা সময়ই বলে দেবে। সুশান্ত সিং এর মৃত্যু রহস্যা নিয়ে যে যেভাবে পারছে হাইপ তুলতে আর ফুটেজ খেতে ব্যাস্ত। মিডিয়ার একাংশকেই দেখে নিন, কে কতটা নতুন তথ্য দিয়ে আমজনতা কে নিজের দিকে টানবে আর টি.আর.পি. বাড়াবে সেটা নিয়ে তুমুলযুদ্ধ চলছে। ব্যাপার টা একটা ক্রেজ এর পর্যায়ে চলে গেছে কারণ বর্তমানের হট নিউজ এই সুশান্ত সিং রাজপুত এর মৃত্যুরহস্য।

গত কয়েকদিন ধরে একটা ভিডিও ভাইরাল হয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় তুলেছে। সেই ভাইরাল ভিডিও:-


আত্মা,পরমাত্মা,অলৌকিক, অতীন্দ্রিয়, প্ল্যানচেট ইত্যাদিতে প্রবল ভাবে বিশ্বাসীরা এই ভাইরাল ভিডিও টা নিয়ে আবেগে আপ্লুত। আবেগ জিনিষ টা বড্ড বেয়াড়া। অনেকটা তরকারিতে নুনের মতন, কম হলেও চলবে না,আবার বেশি হলেও মুশকিল। আবেগ যুক্তির অন্যতম প্রধান শত্রু।

যুগে-যুগে আমজনতার অন্ধবিশ্বাস,আবেগ ইত্যাদিকে পুঁজি করে মাথায় কাঁঠাল ভেঙ্গে নিজেদের আখের গুছিয়ে চলেছে, চলবেও।

ফিরি সেই ভাইরাল হওয়া ভিডিও প্রসঙ্গে, ভিডিও টি Paranormal Researcher Steve Huff এর। Praranormal অর্থাৎ অলৌকিক,অতীন্দ্রিয়, ভুতুড়ে ঘটনা সংক্রান্ত যার ব্যাখ্যা নাকি বিজ্ঞানের কাছেও নেই।

এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি, Psychology অর্থাৎ মনোবিজ্ঞান এবং Parapsychology অর্থাৎ পরামনোবিজ্ঞান শব্দদুটো শুনতে প্রায় একইরকম মনে হলেও সম্পূর্ণ আলাদা বিষয়। যেমন Astronomy ( জ্যোতির্বিজ্ঞান) এবং Astrology ( জ্যোতিষ বিদ্যা) এক জিনিষ নয়। Psychology বা মনোবিজ্ঞান হচ্ছে বিজ্ঞান( Science) এর আরেকটি শাখা যার প্রধান কাজ মানুষের মন নিয়ে নানান গবেষণা এবং মনের বিভিন্ন রোগ বা বিকার নিয়ে কাজ। কিন্তু Parapsychology বা পরামনোবিজ্ঞান ( Pop Science / Psudoscience) মোটেই বিজ্ঞান নয়। Parapsychology র কাজ ভূত-প্রেত-আত্মা-অতিন্দ্রীয় -অলৌকিক- প্ল্যানচেট- জাতিস্মর - পূর্বজন্ম-পূনর্জন্ম - তন্ত্র-E.S.P. ইত্যাদি একগাদা হিজিবিজি বিজ্ঞানবিরোধী বিষয় নিয়ে।

জানিয়ে রাখি E.S.P. অর্থাৎ Extra Sensory Perception বা অতীন্দ্রিয় অনুভূতি বিড়াট বড় ধাপ্পা। এটা মোটামুটি চার ধরনের। (১) Telepathy (দূরচিন্তা), (২) Precognition ( ভবিষ্যৎ দৃষ্টি), (৩) Clairvoyance ( অতীন্দ্রিয় দৃষ্টি),(৪) Psyscho-Kinesis বা P.K.( জড় পদার্থে মানসিক শক্তির প্রয়োগ)।

বিজ্ঞানের মুখোশ পড়া পরামনোবিজ্ঞানী (Parapsychologist) রা যতই তাঁদের হিজিবিজি বিষয় গুলোকে বিজ্ঞানের নামে চালানোর আপ্রাণ চেষ্টা করুক না কেন কোনদিনই সেসব বিজ্ঞান দরবারে স্বীকৃতি পাবেনা। Parapsychologist হিসেবে সুখ্যাতি বা কুখ্যাতি প্রাপ্ত দুজন ব্যাক্তি হলেন ডঃ হেমেন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং ভার্জিনিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের Parapsychology বিভাগের প্রধান আয়েন স্টিভেনসন। অন্ধবিশ্বাসী, কুসংস্কার ও ভাববাদে ( সঙ্গে ভোগবাদ) আচ্ছন্ন, বিনা প্রশ্নে কিংবা যুক্তি-বুদ্ধি কে বস্তাবন্দী করে সব কিছুই অন্ধের মতন মেনে নেওয়া জনগণের কাছে আয়েন স্টিভেনসন ( Ian Stevenson) এর লেখা Cases of The Reincarnation Type বইটি অমূল্য গ্রন্থ।

পরামনোবিজ্ঞানীদের বিজ্ঞানবিরোধী বিষয় গুলোর পর্দাফাঁস করা দুটো বেস্টসেলার বই কেউ চাইলে নেড়েচেড়ে দেখতেই পারেন। বইদুটি হল, দে'জ পাবিলিশিং থেকে প্রকাশিত, প্রবীর ঘোষের লেখা, "অলৌকিক নয়, লৌকিক " ১ এবং ৪ র্থ খন্ড। এখানে Telepathy, Precognition, Psyscho Kinesis, Clairvoyance, E.S.P থেকে আত্মা, আধ্যাত্মবাদ, পূর্বজন্ম, পূনর্জন্ম, জাতিস্মরের নানান ঘটনার ব্যাখ্যা সহ বিভিন্ন তথাকথিত অলৌকিক, অতীন্দ্রিয় ঘটনার বিজ্ঞানসম্মত ব্যাখ্যা সুন্দর ভাবে তুলে ধরা হয়েছে।

প্রশ্ন উঠতে পারে, বিজ্ঞান কি অলৌকিক কিংবা Parapsychologist দের নানান বিষয় গুলো কে সত্যিই কি স্বীকার করেছ?

উত্তর একটাই। না, না এবং না। কারন,বিজ্ঞানের দরবারে কোনো কিছু তখনই প্রতিষ্ঠিত হয় যখন সেটা বিজ্ঞানের - পরীক্ষা, পর্যবেক্ষণ এবং সিদ্ধান্ত এই তিন সহজ - সরল ধাপে উপনিত হয় বা সাফল্য (পাশ) লাভ করে। এমনটা আগেও হয়েছে কল্পিত প্রস্তাবনা বা হাইপোথিসিস। অর্থাৎ কোনো ঘটে যাওয়া ঘটনা দেখে যদি মনে হয় ( সন্দেহ জনক কিছু রয়েছে) গবেষণা চালানো প্রয়োজন, তাকেই বলা হয় ' হাইপোথিসিস '। এখান থেকেই বিজ্ঞানের ঘরে প্রবেশ করার পক্রিয়া শুরু হয়।

অলৌকিক, অতীন্দ্রিয় সহ Parapsychologist দের গবেষণার বিষয়গুলো এখনও পর্যন্ত হাইপোথিসিস এ পা টাই রাখতে পারেনি, বাকি তিন ধাপ তো অনেক দুরের কথা। এখনও পর্যন্ত এমন কিছু ঘটনা ঘটেনি যা ইঙ্গিত করে এইসব হিজিবিজি বিষয় গুলোকে। এখনও সেই রকম কিছু ঘটেনি যার জন্য বিজ্ঞান পরীক্ষা এবং পর্যবেক্ষণ চালিয়ে দেখবে,তারপর আসবে একটা সিদ্ধান্তে। অলৌকিক, অতীন্দ্রিয়, জাতিস্মর, আত্মা ইত্যদিদের কোনো কার্যপ্রলাপ এখনও পর্যন্ত বিজ্ঞান কে প্রভাবিত করতেই পারেনি। তাই বিজ্ঞান আজও মাথা ঘামায়নি যে এসবের অস্তিত্ব আদৌ আছে, নাকি নেই। মোদ্দা কথা Parapsychologist দের মহান গবেষণার সবটাই শুধুমাত্র মনোজগৎ এর কল্পনা এবং গুজব ছাড়া অন্য কিছুই নয়।

একদল ধর্মগুরু থেকে নোবেল পুরস্কারজয়ী বিজ্ঞানী অথবা বিজ্ঞানের মুখোশ পরা Parapsychologist ব্যাক্তিরা ( বিজ্ঞান নিয়ে পড়াশোনা করলেই কিন্ত বিজ্ঞানমনষ্ক,যুক্তিবাদী হওয়া যায়না। যুক্তিবাদী সাজা যায় কিন্ত হওয়া যায় না কারণ, এটা একটা হয়ে ওঠার ব্যাপার। যেটা সবাই পারে না। এর জন্য প্রয়োজন আন্তরিকতা এবং জিজ্ঞাসু মন) যতই অপপ্রচার করুক ' বিজ্ঞানও এসবের অস্তিত্ব কে স্বীকার করে নিয়েছে ' তবুও কোনোদিনই সেটা প্রমাণিত হবে না। আর এটাও সত্য, যেখানে বিজ্ঞান অনুপস্থিত সেখান থেকেই শুরু হয় অন্ধবিশ্বাস, কু-সংস্কার, বুজরুকি, প্রতারণা এবং ভণ্ডামি। তাই বহুজনে বা বিখ্যাতজনে কিছু বলেছেন, লিখেছেন বলেই যে সেসব আপনাকে বিনা প্রমাণে, অভ্রান্ত হিসেবে মেনে নিতেই হবে এই চিন্তা ত্যাগ করুন, মুক্তমনা হয়ে উঠুন।

শুধু একা এই Steve Huff ই নয় সম্প্রতি জনপ্রিয় বাংলা অনুষ্টান দাদাগিরি তে ভুতের দাদাগিরি দেখাতে এসেছিলেন ঈশিতা দাস সান্যাল। তারপর সে আরেক কান্ড। যুক্তিবাদী সমিতির চ্যালেঞ্জের মুখে পরে উনি রণে ভঙ্গ দেন, শুনলাম সম্প্রতি উনিও নাকি সুশান্ত সিং রাজপুত এর আত্মার সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা চালাচ্ছেন।

Praranormal Researcher, Steve Huff মহাশয় কে " ভারতীয় বিজ্ঞান ও যুক্তিবাদী সমিতি " র তরফে আমি অভিষেক দে অনুরোধ জানাচ্ছি, আপনি যদি বাস্তবিকই মনে করেন মৃত ব্যাক্তির আত্মার সাথে যোগাযোগ করতে সক্ষম এবং সুশান্ত সিং এর আত্মার সাথেও যোগাযোগ করতে পেরেছেন তাহলে দয়াকরে আসুন কলকাতা প্রেসক্লাবে। সাংবাদিক দের উপস্থিতিতে প্রমাণ করুন আত্মার অস্তিত্ব। সেখানে আমি, অভিষেক দে কোনও একজন বিখ্যাত ব্যাক্তির আত্মার নাম আপনাকে জানাবো, সেই ব্যাক্তির আত্মাকে এনে আমার করা ১০ টি প্রেশ্নের মধ্যে ৮ টির নির্ভুল উত্তর দিতে সক্ষম হলে আপনাকে দেবো ভারতীয় মুদ্রায় ১০ লক্ষ টাকা, প্রসঙ্গত জানাই যুক্তিবাদী সমিতির সভাপতি এবং বিশিষ্ট লেখক প্রবীর ঘোষ এরও একই দাবী। আত্মা, অলৌকিক,অতীন্দ্রিয় ইত্যাদির প্রমাণ দিতে সক্ষম হলে উনিও দেবেন ৫০ লক্ষ টাকা। অর্থাৎ মোট ৬০ লক্ষ টাকা আপনাকে আমরা পুরস্কার হিসেবে দেবো আত্মার অস্তিত্ব প্রমাণে।

প্রিয়, Steve Huff, আপনি যদি বুজরুক, প্রতারক না হন তাহলে আসুন সাংবাদিক সম্মেলনে। চ্যালেঞ্জ আমাদের প্রমাণের দ্বায়িত্ব আপনার। একই অনুরোধ কিংবা চ্যালেঞ্জ রইলো Praranormal Expert or Researcher ঈশিতা দাস সান্যাল, প্রেততাত্বিক শ্রী বিশ্বনাথ সহ পৃথিবীর সমস্ত Parapsychologist / Praranormal Expert দের উদ্দ্যেশ্যে

6 comments
Enjoy
Free
E-Books
on
Just Another Bangladeshi
By
Famous Writers, Scientists, and Philosophers 
Our Social Media
  • Facebook
  • Twitter
  • Pinterest
Our Partners

© 2023 by The Just Another Bangladeshi. Proudly created by Sen