ভারত তুমি তো ভালো ছেলে তোমার তো এই কাজ করার কথা নয়


প্রধানমন্ত্রী কোম্পানির বিজ্ঞাপনী প্রচারণার শিকার -জাতীয় কমিটির তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া

আনু মোহাম্মাদ যখন বলেন,

“আমরা ভারতের সাথে বন্ধুত্ব চাই, কিন্তু একের পর এক বাংলাদেশের বিপর্যয় ঘটিয়ে আপনারাই বারবার, সীমান্তের মতো, বন্ধুত্বের পথে কাঁটাতারের বেড়া দিচ্ছেন।” অথবা

“‘বাংলাদেশ-ভারতের বন্ধুত্ব খুব গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশ-ভারতের জনগণের মধ্যে যোগাযোগও খুব গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু কোম্পানি যে কাজটা করছে, সুন্দরবন বিনাশ করা সেটা শুধু সুন্দরবন বিনাশ করবে, তা-ই না। এটা বাংলাদেশ-ভারতের যে বন্ধুত্বের সম্ভাবনা সেই সম্ভাবনারও বিনাশ করবে।”

তখন তিনি তার প্রতিবাদের সীমানা নির্দিস্ট করে দেন। একটি রাষ্ট্র আরেকটি রাষ্ট্রের বন্ধু হতে পারেনা, রাষ্ট্র সন্মন্ধীয় এই সরল প্রাথমিক ধারণা আনু মোহাম্মদের জানা নেই এটা আমি মানিনা।

এই রামপাল যে দিল্লী ঢাকার অশুভ আঁতাত যা রূপায়িত হয়েছে বাংলাদেশ রাষ্ট্রের একটি ফ্যাসিস্ট রুপান্তরের মধ্যে দিয়ে সেই বোধ উনার বক্তব্যে কখনো আসেনা।

তাহলে আনু মোহাম্মাদ কী চান? তিনি বলতে চান, ভারত তুমি তো ভালো ছেলে তোমার তো এই কাজ করার কথা নয়, আমরা তো তোমার বন্ধু। আজকের তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়াতেও সেই একই সুর, জাতীয় কমিটি এটাই বলতে চেয়েছে, প্রধানমন্ত্রী যদি বিজ্ঞাপনি প্রচারের শিকার না হতেন তবে উনি রামপাল বন্ধ করতেন।

আমার ধারণা আনু মোহাম্মদেরা এই আন্দোলন থেকে পিছুটান দেবে। অথবা এই আন্দোলন যেই রাজনৈতিক কমিটমেন্ট প্রত্যাশা করে সেই প্রত্যাশা জাতীয় কমিটি মেটাতে পারবেনা।

আপনাদের কী মনে হয়?

0 comments
Enjoy
Free
E-Books
on
Just Another Bangladeshi
By
Famous Writers, Scientists, and Philosophers 
click here.gif
click here.gif

Click Here to Get  E-Books

lgbt-bangladesh.png